You are here: Home / অনুভূতি / স্মৃতিকাতরতার বিষন্ন ছায়ারেখা

স্মৃতিকাতরতার বিষন্ন ছায়ারেখা

Hill and Masud Sumons Wifeকিছু কিছু দৃশ্য ঝুলে থাকে-ইচ্ছে হলেই দেখে নেয়া যায়-ঢুকে পড়া যায় দৃশ্যের ভেতরে। সম্পূর্ণ ঘটনা ঠিক একইভাবে না হলেও কাছাকাছি অথবা তার চেয়েও তীব্র অনুভূতিসম্পন্নভাবে ফিরিয়ে আনা যায়।
এই রোদ্র আর বাতাসময় দুপুর-যেন বাসের ছাদে বসে আছি আমি আর মুন্না। বাস চলছে এতোটা জোরে আর খাড়া পাহাড়ের খাঁজ বেয়ে যে পড়ে গেলেই তিনশ’ ফুট নিচের জঙ্গলে মিলবে এক মহান মৃত্যু। কৃষ্ণচূড়ার লাল, কলাগাছের খয়েরি থোড়, বাঁশবন আর নাম না জানা পাহাড়ি সবুজকে সাঁই সাঁই পাশ কাটিয়ে আকা-বাঁকা উড়ে চলছে আমাদের কাব্যিক চুল। দুই ঢ্যাঙ্গের ব্যালেন্সে নিজেকে বসিয়ে রেখে মুন্নার সিগারেট ধারানোর জোর কোশেশ চলছে। ঢুকে যাচ্ছি-আমি যেন আরও নিবিড়ভাবে ঢুকে যাচ্ছি সেই সময়ের ভিতরে। আমার তীব্র সিগারেটের বাসনা জেগেছে-চলন্ত ছাদে যেমন অপেক্ষায় ছিলাম মুন্নার সিগারেট ধরানোর-আহ! হারামজাদা তাড়াতাড়ি জ্বালা!
এই বাসনাকে আরও এগিয়ে নেয়া যায়-দৃশ্যকে প্রলম্বিত করা যায় কিংবা অন্য কোন দৃশ্যের ভিতরে ঢুকে পড়া যায়-কেওকারাডাংয়ের উপর থেকে দূরের উপজাতি গ্রামে যাবার বাসনাকে আমরা যেমন কিছুতেই দমন করতে পারি নি এবং শেষাবধি গাইডের সতর্কবাণী, ‘ওই গ্রাম দুই দিনের রাস্তা’ জেনেও কাউকে না জানিয়ে শর্টকার্ট মারার ধান্ধায় খাড়া জঙ্গলে নেমে পড়েছিলাম এবং নামতে নামতে ছায়াঘন মৃত্যুর মুখোমুখি হতে হতে অবিশ্বাস্যভাবে ফিরে এসেছিলাম-সেই শুকিয়ে কাঠ হয়ে যাওয়া বুকের ছাতি আর দীর্ঘক্ষণ না খেয়ে থাকা ক্লান্ত দেহ এখনও যেন ঢুলে আছে জুম ঘরে।

Masud Sumonঅনুভূতি লেখক: মাসুদ সুমন। কবি, লেখক ও সাংস্কৃতিক কর্মী, নয়াচর, মাদারীপুর।
রচনাকাল: ২৬ এপ্রিল ২০১২, প্রথম প্রকাশ: দৈনিক বিশ্লেষণ, অনুভূতি প্রকাশনার বিশেষ পাতা, ৫ আগস্ট ২০১২ইং।
facebook.com/masud.sumon.18


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top