You are here: Home / অনুভূতি / হৃদয়ের গভীরে তীব্র মমতা

হৃদয়ের গভীরে তীব্র মমতা

Abu Sayed Lipu (Hridoy Govir Mamota)বিশ বছর! সময়টা একেবারে কম না। হলি ফ্যামিলি’র বারান্দায় বসে আছি। একা। জ্যোৎস্না রাত। আকাশে মস্ত এক চাঁদ বড় বড় চোখে তাকিয়ে আছে। ডেটলের তীব্র গন্ধ বারে বারে মনে করিয়ে দিচ্ছে-আমি হাসপাতালে আছি। রাত বেশ গভীর। চারিদিকে সুনসান নীরবতা। কুকুরের ঘেউ-ঘেউও শুনছি না। প্রকৃতি তাঁর মত করে সেজেছে, নতুন আগমনী বার্তা পেয়ে। থেকে থেকে শুধু ভেসে আসছে একটাই শব্দ, লেবার রুম থেকে। কেমন ব্যথা আর কান্নার মিশ্রণে অপার্থিব লাগছে সে শব্দ, অন্তত আমার কাছে। সেই সাথে তারস্বরে চিৎকার ‘ডাক্তার, আমারে সীজার করেন। ডাক্তার, আমারে সীজার করেন’। মমতাময়ী নার্স অসীম ধৈর্য নিয়ে বলেই যাচ্ছেন, ‘আপনার সব ঠিক আছে, সীজার করা লাগবে না।’ সারা রাত ধরে দুই নারীর এই কথোপকথন শুনে যাচ্ছি। মনে হচ্ছিল অনন্ত অসীম সে মুহূর্ত! আর যেন শেষ হবে না। ভোরের আলো ফুটতে শুরু করেছে। আমার এ মুহূর্তে আর প্রকৃতি দেখার সময় নেই। সমস্ত ইন্দ্রিয় একযোগে লেবার রুমে তাঁকিয়ে আছে। কখন মুহূর্ত আসে। অবশেষে শেষ হয় অপেক্ষার!
আজ আমার ছেলেটি কত্ত বড় হয়েছে! বাংলাদেশ থেকে একা একা ক্যালগেরি আসছে। আর ৩০ মিনিট পর ওর সাথে দেখা হবে দীর্ঘ এক মাস পর। মায়াভরা ছেলেটি আমার সারা পথ কাঁদতে কাঁদতে আসছে। সুদীর্ঘ ছয় বছর পরেও ও বলে কানাডা আমার দেশ না, আমি বাংলাদেশে ফিরে যাব। এটিই ওর শেষ মেসেজ। আমার শরীর তির তির করে কাঁপছে। এতদিন ভাবতাম, ও আমার কিছুই পায় নি। এখন মনে হচ্ছে, না। আমার মনে দেশের প্রতি যে তীব্র মমতা আছে, সেটা ওকে ছুয়েছে। ও আমার সব পেয়েছে। আমার জীবন সার্থক মনে হচ্ছে।
Abu Sayed Lipuঅনুভূতি লেখক: আবু সাঈদ লিপু। কনসালট্যান্ট জিওলজিস্ট, সেপরা পেট্রোলিয়াম কনসালটিং লিঃ, ক্যালাগরি, কানাডা।
রচনা ও প্রকাশকাল: ১০ জানুয়ারি, ২০১৬
যোগাযোগ: +1 403-280-5090, abu_sayed_33@hotmail.com


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top