You are here: Home / অনুভূতি / সবাই বিজয় মিছিল নিয়ে ফিরলো, ও ফিরলো লাশ হয়ে

সবাই বিজয় মিছিল নিয়ে ফিরলো, ও ফিরলো লাশ হয়ে

রোকেয়া বেগম: 
১০ তারিখ সবাই বিজয় মিছিল নিয়ে ফিরলো, আমার ছেলে ফিরলো নিথর দেহে। এত ছোট মানুষ ও, তখন ১৪ বছর বয়স ছিল। তখন মাদারীপুরের মধ্যে এত কম বয়সী কেউ যুদ্ধে যায় নাই।

আমার প্রথম সন্তান বাচ্চু। ও যখন যায়, তখন জিজ্ঞেস করেছিলাম, কোথায় যাও? ও বললো, কাকারা যেখানে আছে সেখানে যাই। আমি বললাম যেখানে যাও ফিরা আইসো। সবাই ফিরে আইলো, ওতো আইলো না।
শুনেছিলাম যুদ্ধক্ষেত্রে বন্দুক-গ্রেনেড এইগুলা চার্জ করলো, পাল্টা গুলিতে সেখানেই শেষ। বাড়িতে নিয়া আসলো। গায়ের মধ্যে কত ধূলাবালি। মাথার একপাশ দিয়া গুলি লাগছে, আর চোখের পাশ দিয়া বাইর হইয়া গেছে। ঘরের সামনে এনে রাখলো। আমার আরেকটা ছেলে হয়েছিল, তার বয়স তখন ৪ দিন। আমি তখন অনেক অসুস্থ ছিলাম। আমার কান্দার শক্তিও ছিল না। যারা ওরে মারছে সেই দলরে শিকল বাইন্ধা নিয়া আইছিল, রাস্তা দিয়া ঘুরাইছে।
নাজিমউদ্দিন কলেজের সামনে আমার ছেলে বাচ্চু কবর। এক সময় আমার লোকজন দিয়া আমার ছেলের কবর সংস্কার করাইছি।
শেখ মুজিব নিজেই কবরের ভিত্তি স্থাপন করে দিয়ে গেছে। এখন পর্যন্ত কোন দলই কবরের কোন তত্ত্ববধান করে নাই। কবরের জায়গা এমন করা হয়েছে সেখানে প্রসাবখানার মত তৈরি করা হয়েছে। আমার অন্য কোন চাওয়া নেই। সন্তানের কবরটি যেন ঠিকমত রক্ষণাবেক্ষণ হয়।
(মাদারীপুর মুক্ত হয় সমাদ্দারে টানা ৩ দিন যুদ্ধের পর। ১০ ডিসেম্বর যুদ্ধের এক পর্যায়ে সরোয়ার হোসেন বাচ্চু মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে শহীদ হন। জেলার মধ্যে সবচেয়ে কনিষ্ঠ এই যোদ্ধার বয়স ছিল তখন মাত্র ১৪ বছর। সন্তানকে হারিয়ে তার মা এখনও বেঁচে আছেন সন্তানের স্মৃতি বুকে ধারণ করে। মাদারীপুর নাজিমউদ্দিন কলেজ গেটে তাকে কবর দেয়া হয়। এমন অসংখ্য শহীদের আত্মত্যাগের বিনিময়েই অর্জিত আমাদের এই স্বাধীনতা।)

অনুভূতি: রোকেয়া বেগম, শহীদ জননী, ১৪ বছর বয়সী সরোয়ার হোসেন বাচ্চুর মা।
অনুলিখন: জহিরুল ইসলাম খান। রচনাকাল: ২০১৩ইং।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top